বাংলা ফন্ট

পেঁয়াজের ঝাঁজ বাড়ছেই

09-12-2017
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 পেঁয়াজের ঝাঁজ বাড়ছেই
ঢাকা: দাম বাড়তে বাড়তে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ এখন ১২০-১২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। বিদেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯০-৯৫ টাকায়। মাসখানেক ধরেই পেঁয়াজের দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে থাকায় অনেকে পেঁয়াজ কেনাও কমিয়ে দিয়েছে। এরই মধ্যে আবার নতুন করে শুরু হয়েছে বাজারে অস্থিরতা।

চলতি বছরের জুলাই মাসের শেষ নাগাদ বিদেশি পেঁয়াজের দাম ছিলো ১৫ থেকে ১৮ টাকা। সে সময় দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হতো ২২ থেকে ২৫ টাকায়। মাত্র এক সপ্তাহ পরেই অর্থ্যাৎ আগষ্টের শুরুর দিকে প্রথম দফায় পেঁয়াজের দাম একলাফে বৃদ্ধি পায় কয়েকগুন।

শুক্রবার পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দফায় দফায়। পাইকারি বাজারে এক দিনের মধ্যেই তিনবার বেড়েছে দেশি পেঁয়াজের দাম। এর প্রভাবে খুচরা বাজারে ৯০-৯৫ টাকা দরের পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১২০-১২৫ টাকা কেজি দরে।

পেঁয়াজের এমন দামে অবাক অনেক খুচরা ব্যবসায়ীও। ফলে অনেক ব্যবসায়ী পাইকারদের কাছ থেকে দেশি পেঁয়াজ না কিনেই ফিরে এসেছেন। এতে কোনো কোনো বাজারে দেশি পেঁয়াজের সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

মাছ, মুরগি, ডিম ও সবজির দাম কমায় ক্রেতাদের কিছুটা স্বস্তি এলেও তা আবার দূর হয়ে যাচ্ছে পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে। অথচ গত বছর এ সময়ে পেঁয়াজের দাম ছিল এখনকার তিন ভাগের এক ভাগ। সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) বাজারদরের তালিকা অনুযায়ী, গত বছর এ সময়ে ভারতীয় ও দেশি পেঁয়াজের কেজিপ্রতি দাম ছিল ২৫ থেকে ৪০ টাকার মধ্যে। অর্থাৎ প্রতি কেজি পেঁয়াজ কিনতে এখন নগরবাসীর খরচ বেড়েছে তিন গুণ বা তারও বেশি।

বছরের এ সময়ে সাধারণত নতুন মৌসুমের মুড়িকাটা পেঁয়াজ ওঠে। দুই মাসের চাহিদা পূরণ হয় এ পেঁয়াজ দিয়েই। কিন্তু এবার সে পেঁয়াজের দেখা মিলছে না। ব্যবসায়ীরা বলছেন, এবার বৃষ্টিতে মুড়িকাটা পেঁয়াজের আবাদ পিছিয়েছে।

এদিকে বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শীতের আগাম সবজি ফুলকপি, বাধাকপি, শিম, লাউ এখন বাজারে ভরপুর। সঙ্গে করলা, ঢেড়স, বেগুন, শাল গম, পাকা ও কাঁচা টমেটা সবকিছুর সরবরাহই রয়েছে পর্যান্ত। ফলে দামও রয়েছে সহনীয় পর্যায়ে।

তবে পেঁয়াজের মতো বেড়েছে কাঁচামরিচের দাম। প্রতিকেজি কাঁচামরিচের দাম বেড়ে হয়েছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা। এক দিন আগেও প্রতিকেজি কাঁচামরিচ বিক্রি হয়েছে ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে।

বেশকিছুদিন ধরে এক’শ টাকার ওপরে বিক্রি হওয়া পাকা টমেটোর দাম কিছুটা কমেছে। প্রতিকেজি পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা কেজি দরে; যা গত সপ্তাহে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। আর কাঁচা টমেটো আগের মতোই ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে পাওয়া যাচ্ছে।

গত সপ্তাহের দামেই বিক্রি হচ্ছে শিম, লাউ, শালগম, করলা, মুলা। প্রতিকেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা দরে। লাউ ৩০ থেকে ৫০ টাকা, শালগমের কেজি ২৫ থেকে ৩০ টাকা, মূলা ১৫ থেকে ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

দাম বেড়েছে বেগুনেরও। ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া বেগুনের দাম বেড়ে হয়েছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা। ফুলকপি, বাধাকপি আগের মতোই ২৫ থেকে ৩০ টাকা পিস বিক্রি হচ্ছে।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল



সর্বশেষ সংবাদ