বাংলা ফন্ট

জেরুজালেমের অতীত সমৃদ্ধির ইঙ্গিত মেলে শহরটির দেয়ালগুলোতে

30-12-2017
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

জেরুজালেমের অতীত সমৃদ্ধির ইঙ্গিত মেলে শহরটির দেয়ালগুলোতে
পূর্ব জেরুজালেম: প্রাচীর বা দেয়াল ছাড়া জেরুজালেমের চেহারা কেমন দেখাতো? প্রাচীনকাল থেকেই কবি-সাহিত্যিকেরা বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গ্রন্থে তাদের মত প্রকাশ করে আসছেন এবং এতে অতীত ও বর্তমানের দ্বন্দ্বকে ছায়াচ্ছন্ন করেছেন তারা।

বর্তমানের সোনালী চুনাপাথরের দেয়ালগুলো ১৬শ’ শতাব্দীতে নির্মিত হয়েছে। অটোমান সুলতান সেলিম দ্য গ্রিমের শাসনকালে ১৫১৭ সালে জেরুজালেম তুর্কি শাসনের অধীনে চলে আসে। এরপর শাসন ক্ষমতায় আসেন তার ছেলে সুলতান সুলেইমান। তার তাৎপর্যপূর্ণ নির্দেশে নান্দনিক এই প্রাচীরগুলো নির্মিত হয়।

১৯১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর ব্রিটিশ জেনারেল এডমন্ড অ্যালেনবি জেরুজালেমের ‘জাফা গেট’ দিয়ে অভিযান চালিয়ে শহরটির দখল নিলে ৩০ বছরের ব্রিটিশ শাসনের যাত্রা শুরু হয়। এর আগে ৪০০ বছর পর্যন্ত শহরটি অটোমান শাসনের অধীনে ছিল।

জেরুজালেমের ৩,০০০ বছরের দাঙ্গা-হাঙ্গামাপূর্ণ ইতিহাসে পুরানো শহরটির শাসন করেছে বিভিন্ন জাতি গোষ্ঠীর শাসকেরা। প্রাচীন পারস্য ও ব্যাবিলনীয় যুগ থেকে সময়ে পরিক্রমায় নানা পথ পেরিয়ে সেখানে জন্ম নিয়েছে আজকের আধুনিক জর্ডান, ইসরাইল এবং ফিলিস্তিন রাষ্ট্র।

সেই প্রাচীন আমলের দেয়ালগুলো এখনো শহরটিতে শোভা পাচ্ছে। তবে, কিছু দেয়াল যুদ্ধ বা ভূমিকম্পের কারণে ধ্বংস হয়ে গেছে।

বর্তমানে প্রাচীন এই শহরটির চারপাশে প্রায় ২.৫ মাইল (৪ কিলোমিটার) এলাকাজুড়ে এই দেয়াল রয়েছে। শহরটির প্রাচীন এই ঐতিহ্য দেখার জন্য ইহুদি, মুসলিম ও খ্রিস্টানসহ সারা বিশ্ব থেকে বিভিন্ন জাতি গোষ্ঠীর পর্যটকেরা ভির করেন।

ছবিটি ২০১৭ সালের ২৪ মে তোলা। এটি পূর্ব জেরুজালেমের প্রতিবেশি সিলওয়ান। লোকজন জেরুজালেমের পুরানো শহরের দেয়ালে দিকে হাঁটছেন।

কিন্তু পুরানো এই শহরটি, এর দেয়ালসমূহ এবং এর বিখ্যাত ধর্মীয় স্থানগুলো আবারো নতুন করে সংঘাতের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। এটি ইহুদি, খ্রিস্টান এবং মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত পবিত্র একটি স্থান। দেয়াল ঘেরা ২১৫ একরের এই শহরটিকে ইসরাইল ও ফিলিস্তিন উভয়েই তাদের নিজেদের বলে দাবি করছে।

ছবিটি ২০১৭ সালের ২৩ ডিসেম্বর তোলা হয়। জেরুজালেমের পুরনো শহরটি সফরে অফ ডিউটিতে ইসরাইলি সৈন্যরা।

১৯৬৭ সালে ছয় দিনের যুদ্ধে জর্ডান-নিয়ন্ত্রিত পূর্ব জেরুজালেমকে অবৈধভাবে নিজেদের দখলে নেয় ইসরাইল। পরে তারা পূর্ব জেরুজালেমকে নিজেদের অংশে একত্রিত করে। তবে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইসরাইলের এই পদক্ষেপে সমর্থন দেয়নি। ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুজালেম ও পুরাতন শহরটিকে তাদের ভবিষ্যতের রাজধানী হিসেবে দেখতে চায়।

ছবিটি ২০১৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর তোলা হয়। ছবিতে জেরুজালেম ওল্ড শহরের সিয়োন গেট অতিক্রম করার জন্য এক কিশোরীর অপেক্ষা।

গত ৬ ডিসেম্বর জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে তেলআবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে জেরুজালেমে নেয়ারও ঘোষণা দেন তিনি। ইসরাইল-ফিলিস্তিন শান্তি প্রক্রিয়ায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নীতির নাটকীয় পরিবর্তনের জেরে ব্যাপক প্রতিবাদ শুরু হয় বিশ্বজুড়ে।

ট্রাম্পের এই ঘোষণার প্রতিবাদে ১২ ডিসেম্বর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে ইসলামিক সহযোগিতা পরিষদের (ওআইসি) জরুরি এক সম্মেলনে জেরুজালেমকে আনুষ্ঠানিকভাবে ফিলিস্তিনি রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

কিন্তু দেয়ালের ছায়া দৈনন্দিন জীবনে গুরুত্ব প্রভাব ফেলছে। পারিবারিক পিকনিক, উপাসকদের প্রার্থনা, হকারদের বিভিন্ন সামগ্রী বিক্রয় এবং শিল্পীরা নিজেদের মতো করে রঙ-তুলি দিয়ে এর নান্দনিক ছবি আকঁছেন।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


সর্বশেষ সংবাদ