বাংলা ফন্ট

সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ড, বাংলাদেশ ১১৫তম

15-03-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ড, বাংলাদেশ ১১৫তম
নিউইয়র্ক: ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট-২০১৮-তে বিশ্বের সুখী দেশের তালিকায় পাঁচ ধাপ অবনতি হয়েছে বাংলাদেশের। এবার এই সূচকে ১১৫তম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। যেখানে ২০১৭ সালে বাংলাদেশ ছিল ১১০তম।

জাতিসংঘের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সলিউশনস নেটওয়ার্ক (এসডিএসএন) বুধবার এই রিপোর্ট প্রকাশ করে। এবার এই তালিকায় স্থান পেয়েছে ১৫৬টি দেশ। গত বছর ১৫৫টি দেশ স্থান পেয়েছিল।

আর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সুখী দেশের তালিকায় সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে পাকিস্তান। দেশটি ৭৫তম স্থান দখল করতে পেরেছে। এ তালিকায় ভারতের অবস্থান ১৩৩তম, নেপাল ১০১ এবং শ্রীলঙ্কা ১১৬তম। গত বছর ভারত ১২২তম, নেপাল ৯৯ এবং শ্রীলঙ্কা ১২০তম অবস্থানে ছিল।

ছয়টি মানদণ্ডকে বিবেচনায় নিয়ে বিশ্বের এই সুখী দেশের এ তালিকাটি তৈরি করা হয়। এগুলো হলো- স্বাস্থ্যকর জীবনের প্রত্যাশা, মোট দেশজ উৎপাদন, উদারতা, সামাজিক সমর্থন, দুর্নীতির ধারণা ও জীবনধারণের স্বাধীনতা।

সবচেয়ে সুখী দেশ

এবার বিশ্বে সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকায় স্থান পেয়েছে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান ফিনল্যান্ড। এক ধাপ অবনতি হয়ে দ্বিতীয় স্থানে স্ক্যান্ডিনেভিয়ানের আরেক দেশ নরওয়ে। গতবছর দেশটি শীর্ষ সুখী দেশ ছিল। এবার তৃতীয় ডেনমার্ক, চতুর্থ আইসল্যান্ড, পঞ্চম সুইজারল্যান্ড, ষষ্ঠ নেদারল্যান্ডস, সপ্তম কানাডা, নিউজিল্যান্ড অষ্টম, সুইডেন নবম আর অস্ট্রেলিয়া ১০ম সুখী দেশ।

যুক্তরাষ্ট্রও এবার চার ধাপ পিছিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র সুখী দেশের তালিকায় ১৮ তম অবস্থানে রয়েছে। তবে যুক্তরাজ্য আগের অবস্থানেই রয়েছে, দেশটির অবস্থান ১৯তম। এছাড়া জার্মানি ১৫তম, সিঙ্গাপুর ৩৪তম ও ফ্রান্স ২৩তম সুখী দেশের তালিকায় রয়েছে।

সবচেয়ে কম সুখী দেশ

এবার সবচেয়ে কম সুখী দেশ আফ্রিকার বুরুন্ডি। প্রতি বছর ২০ মার্চ আন্তর্জাতিক সুখ দিবস সামনে রেখে মার্চে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ২০১২ সাল থেকে এ প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশ করা হচ্ছে।

বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ নরওয়ে, দুঃখী আফ্রিকা!
ঢাকা: ১৫৫ দেশের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশের শিরোপা উঠল নরওয়ের মাথায়। জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট ২০১৭ অনুযায়ী পৃথিবীর সবথেকে সুখী দেশ হল ইউরোপ মহাদেশের নরওয়ে।

প্রথম চারে আছে ডেনমার্ক, আইল্যান্ড এবং সুইৎজারল্যান্ড। তবে সুখের ‘গ্যাং অফ ফোরে’র কেন্দ্রবিন্দুত রয়েছে নরওয়ে।

‘অর্থ নয়’, যত্নশীলতা, স্বাধীনতা, উদারতা, সততা, স্বাস্থ্য, আয় এবং সুশাসন-এই মানদণ্ডেই সুখের মরিমাপ করেছে জাতিসংঘ।

আর এই ‘সুখের পরীক্ষায়’ বাকি দেশগুলোর থেকে তুলনায় বেশি নম্বর পেয়েই প্রথম হয়েছে নরওয়ে। উল্লেখ্য সুখ ‘হারিয়েছে’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র! নিজের অবস্থান থেকে সরে গিয়ে ১৪ নম্বরে নামতে হয়েছে ট্রাম্পের দেশকে। ১৫৫টি সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশ আছে ১১০ নম্বরে।

সুখী দেশের তালিকায় প্রথম ২০টি দেশ হলো- নরওয়ে, ডেনমার্ক, আইসল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, কানাডা, নিউজিলন্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, সুইডেন, ইসরাইল, কোস্টারিকা, অস্ট্রিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, আয়ারল্যান্ড, জার্মানি, বেলজিয়াম, লাক্সেমবার্গ, যুক্তরাজ্য ও চিলি।

সুখী দেশের তালিকায় থাকা প্রথম দশ দেশের প্রত্যেক নাগরিকের ‘মানসিক স্বাস্থ্য’, ‘মনস্তত্ত্ব’, ‘মানবিক সম্পর্ক’ সারা পৃথিবীর কাছে উদাহরণ হওয়ার মত এবং শিক্ষণীয়, এমনই দাবি করছে জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট ২০১৭।

ওই রিপোর্টের আরো দাবি, আর্থিক উন্নয়নের বিচারে চীন সারা পৃথিবীর কাছে বিকল্প মডেল হলেও সুখের বিচারে এই কমিউনিস্ট দেশ বিগত ২৫ বছর ধরে সুখ হারিয়েই যাচ্ছে! যুক্তরাষ্ট্রে অধঃপতনের কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা দায়ি করেছে, ‘অসামাজিকতা এবং অপশাসন’কেই।

উল্লেখ্য, পৃথিবীর দুঃখী দেশের মধ্যে প্রথম সারিতেই রয়েছে মিডল ইস্ট এবং আফ্রিকা। ইয়েমেন, সিরিয়া, তানজানিয়া এবং মধ্য আফ্রিকার সামাজিক-সাংস্কৃতিক পরিবেশ নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল



সর্বশেষ সংবাদ