বাংলা ফন্ট

কীটনাশক দিয়ে মাছ নিধন

30-09-2017
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 কীটনাশক দিয়ে মাছ নিধন
বরিশাল: নগর সংলগ্ন পপুলার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে চাষকৃত মাছ অবমুক্ত করে খেলাধূলার মাঠটি উপযোগী করতে নির্দেশ দেওয়ার দুইদিন পর প্রধান শিক্ষক কীটনাশক ব্যবহার করে মাছগুলো মেরে ফেলেছে। অথচ বিদ্যালয় সংলগ্ন দুইটি পুকুর এবং একটি খাল থাকলেও মাছ অবমুক্ত করেননি তিনি। জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান ২৫ সেপ্টেম্বর প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয় মাঠে মাছ চাষ করায় ভর্ত্সনা প্রদান করেন এবং মাছগুলো অবমুক্ত করে মাঠটি খেলার উপযুক্ত করতে নির্দেশ দেন। তার নির্দেশের দুইদিন পর বৃহস্পতিবার মাছ চাষকৃত মাঠটিতে প্রধান শিক্ষক কীটনাশক দিলে দুপুর থেকেই মাছগুলো মরে ভেসে উঠে। গত শুক্রবার মরা মাছগুলোর গন্ধ চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়। শুক্রবার সকালে প্রধান শিক্ষক ফরিদ উদ্দিন বিদ্যালয়ের সামনে আসলে এলাকাবাসী উত্তেজিত হয়ে উঠে। তারা দেশিজাতের এ মাছগুলো পুকুরে কিংবা খালে অবমুক্ত না করে মেরে ফেলার কারণ জিজ্ঞাসা করে। এক পর্যায়ে এলাকাবাসীর ক্ষিপ্ততা দেখে প্রধান শিক্ষক সেখান থেকে সটকে পড়েন।

রায়পাশা-কড়াপুর ইউপি’র চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান খোকন মাছগুলো অবমুক্ত না করে মেরে ফেলার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছেন। তিনি বলেন, মাছগুলো মেরা ফেলায় দুর্গন্ধে পরিবেশ দূষিত হয়ে যাচ্ছে।

এ বিদ্যালয়ের বিশাল মাঠটি দখল করে প্রধান শিক্ষক মাছ চাষ করার সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান মাঠটি অবমুক্ত করার নির্দেশ দেন। জেলা প্রশাসক সদর আসনের সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজের সঙ্গে যোগাযোগ করে দ্রুত মাঠটি সংস্কারের জন্য বরাদ্দ দেওয়ার অনুরোধ জানান। সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ ৮শ শিক্ষার্থীর এ মাঠটিতে পুনরায় খেলাধুলার উপযোগী করতে বরাদ্দসহ সকল সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইচএমএল

সর্বশেষ সংবাদ