বাংলা ফন্ট

বরিশাল সিভিল সার্জেনের বিরুদ্ধে ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ

02-08-2016

বরিশাল সিভিল সার্জেনের বিরুদ্ধে ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ  প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রার্থীদের স্বাস্থ্য সনদ প্রদানের নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ শফিউলজ্জামানের বিরুদ্ধে। নিজ দপ্তরের এম.এল.এস মিজানের মাধ্যমে শত শত প্রার্থীদের কাছ থেকে জনপ্রতি ১ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নিলেও নিজেকে রেখেছেন ধরা ছোয়ার বাইরে। গতকাল স্বাস্থ্য সনদ নিতে আসা জাফরিন সুলতানা, নুসরাত জাহান, নাজমা বেগম’সহ আগত বেশ কয়েকজন প্রার্থী বলেন, আমরা সরকার নির্ধারিত টাকা ব্যাংক চালানের মাধ্যমে পরিশোধ করলেও সিভিল সার্জন বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে তার পিয়ন মিজানের মাধ্যমে প্রতি জনের কাছ থেকে টাকা আদায় করেছে। কেউ টাকা দিতে অস্বীকার করলে তার স্বাস্থ্য সনদ আটকে দেওয়ার হুমকি দেওয়ায় বাধ্য হয়ে টাকা দিচ্ছি। প্রকাশ্য দিবালোকে সিভিল সার্জন কম্পাউন্ডে ঘুষ গ্রহণের সংবাদ পেয়ে সংবাদকর্মীরা ছুটে গেলে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। এ সময় এম.এল.এস মিজান’সহ তার সহযোগীরা তাৎক্ষনিক দৌড়ঝাপ শুরু করে। সংবাদিকরা মিজানকে টাকা নেওয়ার কারন জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, স্যারের নিদের্শ মত টাকা নিচ্ছি। আমি ছোট মানুষ আমাকে না ধরে পারলে তাদের ধরুন। এ সময় ঘটনাস্থলের ছবি তুলতে গেলে দম্ভোক্তি দেখিয়ে মিজান বলেন, স্যার প্রধানমন্ত্রীর আত্মীয়, আপনারা নিউজ করলেও কিছুই হবে না। কিছু সময় পর মিজান ফোন দিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক কে সংবাদ প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ভাই একটু কষ্ট করে অফিসে আসেন। স্যার আপনাকে চা খাওয়ার অনুরোধ করেছেন। অভিযোগ প্রসঙ্গে জেলা সিভিল সার্জনের মোবাইলে একাধিকবার কল করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

সর্বশেষ সংবাদ