বাংলা ফন্ট

দেরি করা ট্রেনে ঈদযাত্রা শুরু, ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি চরমে

10-06-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 দেরি করা ট্রেনে ঈদযাত্রা শুরু, ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি চরমে
ঢাকা: পবিত্র ঈদুল ফিতরের ৫ দিন বাকি। শুরু হয়েছে রাজধানী থেকে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা। ঈদ উপলক্ষ্যে ট্রেনের আগাম টিকিটের ট্রেন যাত্রা শুরু করেছে। তবে প্রথম দিনে বেশিরভাগ ট্রেনই ছেড়েছে আধাঘন্টা থেকে এক ঘন্টা দেড়িতে।

ট্রেনের দেরিতে ছাড়াতে যাত্রীরা বিরক্তি প্রকাশ করলেও স্টেশন কর্তৃপক্ষ স্বাভাবিকভাবেই নিচেছ। কর্তৃপক্ষ মনে করছে সিডিউলে কোনো বিপর্যয় নেই, তবে কোনো কোনো ট্রেনের হয়তো দেড়ি হচ্ছে যা সারা বছরেই হয়ে থাকে।

আজ রবিবার থেকে ঈদের এ সপ্তাহ পর্যন্ত সাপ্তাহিক বন্ধের দিনেও ট্রেন চলবে।

রবিবার সকালে ঘরমুখো হাজারো মানুষ নিয়ে কমলাপুর রেলস্টেশন ছেড়ে গেছে ঈদের প্রথম ট্রেন। যাত্রার প্রথম দিনেই ছিলো উপচেপড়া ভিড়। ট্রেনে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশি মানুষ উপস্থিত হন কমলাপুর স্টেশনে। যাত্রীদের অনেকেই ট্রেনের ভিতরে জায়গা না পেয়ে ছাদে চড়ে বসেন। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের তৎপরতায় তারা ছাদে চড়ে যেতে পারেননি গন্তব্যের দিকে।

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে রবিবার (১০ জুন) সকাল ৬টা ২০ মিনিটে দিনের প্রথম ট্রেন সুনন্দরবনের যাত্রা হওয়ার কথা থাকলেও সেটি ৫০ মিনিট দেরিতে যাত্রা করে খুলনার উদ্দেশে।

চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, দিনাজপুর, লালমনিরহাটসহ দেশের বিভিন্ন রুটে দিনের বিভিন্ন সময়ে ট্রেন ছেড়ে যাওয়ার কথা রয়েছে। এসব ট্রেনের যাত্রীরা ভোর থেকে এসে স্টেশনে অপেক্ষা করছেন। সকালে গিয়ে কমলাপুর স্টেশনের প্রায় সবকটি প্লটফর্ম ভর্তি অপেক্ষমান যাত্রীদের দেখা গেছে।

ট্রেনের বিলম্ব নিয়ে যাত্রীদের মাঝে কিছুটা ক্ষোভ দেখা গেছে। সুন্দরবনে ঈশ্বরদীর উদ্দেশে রওনা দেয়া আসাদুজ্জামান নামের এক যাত্রী জানান, বাসের সময় ঠিক থাকে দেখেই আগের দিন রাতে এসে ট্রেনের টিকিট কাটলাম। যাতে নির্ধারিত সময়ে পৌঁছাতে পারি। কিন্তু ট্রেনও যদি সঠিক সময়ে না ছাড়ে তাহলে আর আমাদের ভোগান্তি ছাড়া উপায় কি?

এদিকে প্রথম দিন থেকেই ট্রেনেই উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। আজকের দিনের সব ট্রেনের টিকিট ১ জুন বিক্রি করা হয়েছে। এই পরে আজকের জন্য অতিরিক্ত টিকিট দেওয়া না হলেও আজ সকাল থেকে দেওয়া হচ্ছে সীটবিহীন টিকিট।

কমলাপুর স্টেশনে ভোর থেকেই দেখা গেছে, যাত্রীদের বাড়তি চাপ। টিকিট কাউন্টারে দেখা গেছে উপচে পড়া ভীড়। কাউন্টারের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ট্রেনের সব টিকিট আগাম বিক্রি হয়েছে। তবে যারা আসনবিহীন টিকিট নিতে চান তাদেরই শুধু টিকিট দেওয়া হচ্ছে। এতেই কাউন্টারে উপচে পড়া ভিড়।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


সর্বশেষ সংবাদ