বাংলা ফন্ট

কমলাপুরে দীর্ঘ লাইন, এসি টিকিট মিলছে না

04-06-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 কমলাপুরে দীর্ঘ লাইন, এসি টিকিট মিলছে না

ঢাকা: কমলাপুরে সাধারণ শ্রেণির টিকিট পাওয়া গেলেও প্রত্যাশিত শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরার টিকিট মিলছে না। এ জন্য হতাশ যাত্রীরা।

টিকিটপ্রত্যাশীদের অভিযোগ, সারাদিন-সারারাত দাঁড়িয়ে থেকেও তারা এসি টিকিট পাচ্ছেন না। কাউন্টার থেকে বলা হচ্ছে এসি টিকিট নেই।

সোমবার ঈদের অগ্রিম টিকিট দেয়ার চতুর্থ দিনে উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে।

পছন্দের টিকিট কেনার জন্য ২৪ ঘণ্টা আগে কাউন্টারের সামনে এসে দাঁড়িয়েছেন যাত্রীদের অনেকে।

আবদুল হামিদ খান নামে এক ব্যক্তি জানান, ঢাকা থেকে দেওয়ানগঞ্জগামী তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিটের জন্য রোববার সকাল ৮টায় তিনি কমলাপুর স্টেশনে এসেছেন। ২৪ ঘণ্টা পর কাউন্টার থেকে জানানো হয় কোনো এসি টিকিট নেই। শেষে শোভন চেয়ার টিকিট কাটেন।

বেসরকরি চাকরিজীবী মাহবুব আলম জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় কাউন্টারে গিয়ে তিনি জানতে পারেন নীলসাগর ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরার কোনো টিকিট নেই। তিনি বলেন, কাউন্টার থেকে যে কথা বলে তা বিশ্বাসযোগ্য মনে হয় না। আমার আগে সাতজন টিকিট নিয়েছেন। এর মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয়জন চারটা করে আটটা টিকিট কিনেছে। কিন্তু এর পর আর কেউ এসি টিকিট পায়নি।

বিক্রি শুরুর আধঘণ্টার মধ্যে এসি টিকিট শেষ হয়ে যাওয়াটা প্রশ্নবিদ্ধ বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী আবুল কালাম।

সোমবার কমলাপুর থেকে ২৭ হাজার ৪৬১টি টিকিট বিক্রি হচ্ছে। এসব টিকিটের মধ্যে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরার সংখ্যা জানতে চাইলেও দিতে পারেননি কমলাপুরের স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্ত্তী।

তিনি বলেন, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরার টিকিটে চাহিদা বেশি। সেগুলো কাউন্টার থেকেই বিক্রি হয়েছে।

তবে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরার বেশিরভাগ টিকিট ভিআইপিদের জন্য রেখে দেয়া হয় বলে জানান রেলওয়ের একজন কর্মকর্তা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘আপার ক্লাসের টিকিটের চাহিদা অনেক বেশি। মন্ত্রী, এমপি, সচিব এবং বিভিন্ন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, পুলিশ, সাংবাদিক সবাই চায়। এটি এডজাস্ট করতে গিয়ে কাউন্টারে বেশি টিকিট দেয়া যায় না। এ কারণে এটা নিয়ে সবসময়ই ঝামেলা হয়।

বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. আমজাদ হোসেন জানান, ট্রেনের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরার টিকিটের চাহিদা বেশি, কিন্তু কোচ কম।

কাউন্টারে এসি টিকিট কম দেয়া হয় কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভিআইপিদের জন্য কোটা আছে। এটি তো আর অ্যাভয়েড করা যাবে না। বিচারপতি মহোদয়রা যাবেন, এমপি মহোদয়রা যাবেন। উনাদের জন্য তো এসি রাখতে হয়।

সোমবার সকাল ৮টা থেকে কমলাপুর স্টেশনের ২৬টি কাউন্টারে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট দেওয়া শুরু হয়। সোমবার বিক্রি হচ্ছে ১৩ জুনের ঈদযাত্রার টিকিট।

অগ্রিম টিকিট বিক্রির প্রথম তিন দিন প্রতিদিন আন্তঃনগর ট্রেনের ২৩ হাজার ৫১৪টি টিকিট দেওয়া হচ্ছিল। তবে ১৩ তারিখ থেকে ঈদের বিশেষ ট্রেন চলাচল শুরু হবে। সে জন্য সোমবার এসব ট্রেনের তিন হাজার ৯৪৭টি অতিরিক্ত টিকিটও কাউন্টার থেকে দেয়া শুরু হয়েছে।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল



সর্বশেষ সংবাদ