বাংলা ফন্ট

বিষণ্নতা কমাতে খান ‘ড্যাশ ডায়েট’

03-03-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 বিষণ্নতা কমাতে খান ‘ড্যাশ ডায়েট’
ঢাকা: ‘ডায়েটারি অ্যাপ্রোচেজ টু স্টপ হাইপার টেনশন’ বা ড্যাশ ডায়েট এমন এক ধরনের খাদ্যব্যবস্থাপনা যা শরীরে পর্যাপ্ত শক্তি জুগিয়ে ওজন কমায় ও দুশ্চিন্তা দূর করতে সাহায্য করে।

এর মধ্যে নির্দিষ্ট পুষ্টি উপাদান যেমন- ফল, সবজি ও শষ্যজাতীয় খাবারের সঙ্গে চর্বি বিহীন দুগ্ধজাত খাবার, মাছ, মুরগি, বিন, বীজ ও বাদাম ইত্যাদির উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়।

গবেষণায় দেখা গেছে যারা সবজি, ফল ও শষ্য খায় তাদের উচ্চ দুশ্চিন্তার মাত্রা কমে এবং হতাশার সম্ভাবনাও হ্রাস পায়।

আরও দেখা গেছে যারা ড্যাশ ডায়েট অনুসরণ করেন তাদের মধ্যে হতাশার মাত্রা অন্য যারা এই খাদ্যাভ্যাস অনুসরণ করে না তাদের চেয়ে কম থাকে।.

শিকাগোর রাশ ইউনিভার্সিটি মেডিকেল সেন্টার’ অধ্যাপক এবং এই গবেষণার সহকারী লেখক লরেল চেরিয়ান বলেন, “বৃদ্ধ বয়সে হতাশা ও স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়া সাধারণ ঘটনা। আর রক্তনালীর নানারকমের ঝুঁকি যেমন- উচ্চ রক্তচাপ বা উচ্চ কোলেস্টেরল অথবা স্ট্রোক দেখা দেয়।”

লস অ্যাঞ্জেলেসে অনুষ্ঠিত আমেরিকান একাডেমি অফ নিউরোলজি’র ৭০তম বার্ষিক সভায় একটি গবেষণার ফলাফল প্রকাশ করার জন্য গড়ে ৮১ বছর বয়স্ক ৯৬৪ জন অংশগ্রহণকারীকে প্রায় সাড়ে ছয় বছর ধরে প্রতি বছর মূল্যায়ণ করা হয়।

তারা হতাশার নানান লক্ষণ, যেমন- যে সব কারণে তারা আগে বিরক্ত হত না কিন্তু এখন হচ্ছে এবং ভবিষ্যৎ নিয়ে নিরাশ হয়ে যাচ্ছে এমন বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ করেন।

তারা কখন বিভিন্ন ধরনের খাবার খায় সে সম্পর্কে প্রশ্নমালা পূরণ করেছেন।

অংশগ্রহণকারীদের খাদ্যাভ্যাসের ভিত্তিতে তিনটি দলে ভাগ করা হয়।

দুই দলের অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যারা এই ডায়েট অনুসরণ করেনা তাদের তুলনায় যারা ড্যাশ ডায়েট অনুসরণ করে তাদের হতাশাগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম দেখা যায়।

ড্যাশ ডায়েট অনুসারীদের উচ্চ ও নিম্ন দলের মধ্যে ১১ শতাংশ হতাশার পার্থক্য থাকে। অন্যদিকে, যারা পাশ্চাত্যের ডায়েট অনুসরণ করেন অর্থাৎ উচ্চ চর্বি ও লাল মাংস বেশি খান এবং ফল ও সবজি কম খান তাদের মধ্যে হতাশার মাত্রা অনেক বেশি থাকে।  

ছবি: রয়টার্স

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


সর্বশেষ সংবাদ