বাংলা ফন্ট

এবার আরেক ‘ধর্ষক’ ধর্মগুরুর খোঁজ!

15-10-2017
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

এবার আরেক ‘ধর্ষক’ ধর্মগুরুর খোঁজ!

ঢাকা: ধর্ষণের দায়ে ভারতের কথিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং-এর ২০ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হওয়ার পর এবার খোঁজ পাওয়া গেল আরেক ‘ধর্ষক’ ধর্মগুরুর। গুজরাটের নানপুরার কথিত ধর্মগুরু আচার্য শন্তিসাগর মহারাজকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার করেছে স্থানীয পুলিশ।

টাইমস অফ ইন্ডিয়া বলছে শনিবার রাতে সুরাট থেকে শান্তিসাগরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ১৯ বছর বয়সী এক তরুনীর অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় তাকে।

তরুণীর অভিযোগ ১ অক্টোবর পরিবারের সঙ্গে শান্তিসাগরের আশ্রমে গিয়েছিলেন তিনি। সবাইকে মণ্ত্রপাঠে ব্যস্ত রাখার এক ফাঁকে ওই করুণীকে অন্য একটি কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করেন তিনি।

ঘটনার ১১ দিন পর থানায় অভিযোগ দায়ের করা প্রসঙ্গে পুলিশ জানায়, প্রথমে সম্মানহানীর ভয়ে ধর্ষণের ঘটনা চেপে রেখেছিলেন ওই তরুণী। স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর ধর্ষণের প্রমাণও মিলেছে ওই তরুণীর শরীরে।

সুরাটের পুলিশ কমিশনার সতীশ শর্মা বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর শান্তিসাগরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শনিবার বিকেলে আথওয়া লাইনস পুলিশ স্টেশনে নিয়ে আসা হয়েছিল। পরে রাতে তাঁকে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় শান্তিসাগরের হাজারো অনুসারী থানার সামনে ভিড় জমিয়েছিলেন।

সুরাটের (জোন ৪) ডেপুটি পুলিশ কমিশনার ভিধি চৌধুরী বলেন, ‘ওই তরুণীকে ধর্ষণের প্রমাণ আমাদের কাছে আছে। আচার্য শান্তিসাগরের বিরুদ্ধে তদন্ত চলবে।’

তবে শান্তিসাগরের অনুসারীরা এই অভিযোগকে মিথ্যা ও আচার্যের সম্মানহানির জন্য অভিযোগ করা হয়েছে বলে দাবি করছে।

‘সকল দিগম্বর জৈন সমাজে’র নেতা ও আইনজীবী আর জি শাহ বলেন, ‘অভিযোগে বলা হয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে রাত সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টার মধ্যে। কিন্তু রাত সাড়ে আটটার পরে মুনি কখনোই দর্শনার্থী ও অনুসারীদের সঙ্গে দেখা করেন না। এ ছাড়া ঘটনার পর এত দিন চুপ থাকা প্রমাণ করে যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবেই মুনির সম্মানহানি করতে এই অভিযোগ করা হয়েছে।’

এর আগে আগস্টে দুই নারী অনুসারীকে ধর্ষণ করার দায়ে বিশ বছরের কারাদণ্ড হয় ডেরা সাচ্চা সওদার কথিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং-এর। তার জেলে যাওয়াকে কেন্দ্র করে পাঞ্জাব ও হরিয়ানাজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে সংঘর্ষ। এতে নিহত হন তিরিশ জনেরও বেশি।

সূত্র : টাইমস অফ ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


সর্বশেষ সংবাদ