বাংলা ফন্ট

সংবিধানের ধারা বাতিল করার দাবিতে উত্তাল কাশ্মীর

06-08-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 সংবিধানের ধারা বাতিল করার দাবিতে উত্তাল কাশ্মীর
শ্রীনগর: সংবিধানের ৩৫এ অনুচ্ছেদ বাতিল করার দাবিতে উত্তাল কাশ্মীর উপত্যকা। ৩৫এ অনুচ্ছেদ বাতিল মামলার শুনানির আগে কাশ্মীরের পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশঙ্কা করা হচেছ। ওই মামলা সোমবার সুপ্রিম কোর্টে ওঠার কথা রয়েছে।

পরিস্থিতি এতটাই ঘোলাটে যে মামলার শুনানি স্থগিত রাখার আবেদন করেছেন রাজ্যপাল এনএন ভোরা। বিক্ষোভকারীদের দাবি, সংবিধানের ৩৫এ অনুচ্ছেদ বাতিল করার দাবিতে যে জনস্বার্থ মামলা করা হয়েছে তা বাতিল করতে হবে।

৩৫এ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বিশেষ কিছু সুবিধা পেয়ে থাকেন কাশ্মীরের মানুষ। সেইসব সুবিধা বাতিলের দাবি করে ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলা করে উই দ্যা সিটিজেন্স নামে একটি সংগঠন।

সেই মামলারই শুনানি হবে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বাধীন ৩ সদস্যের একটি বেঞ্চে। অন্য দুই বিচারপতি হলেন এ এম খানওয়ালিকর ও বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।

কী রয়েছে অনুচ্ছেদ ৩৫এ-তে?
এই অনুচ্ছেদ রাজ্যের বাইরের কোনও লোক জম্মু ও কাশ্মীরের কোনও সম্পত্তি কিনতে পারেন না। পাশপাশি কাশ্মীরের কোনও মহিলা রাজ্যের বাইরের কাউকে বিয়ে করলে তিনি বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হন।

১৯৫৪ সালে এই অনুচ্ছেদটি সংবিধানে অর্ন্তভুক্ত করা হয়।এই অনুচ্ছেদের সমর্থনে ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছে ন্যাশনাল কন্ফারেন্স ও সিপিএম।

এছাড়াও রাজ্যের অন্যান্য দল ও সংগঠন এনিয়ে রাস্তায় নেমেছে। রবিবার এনিয়ে বিক্ষভের ডাক দেয় স্বাধীনতা কামিরা। ফলে সারদিন উপত্যকা ছিল শুনসান। দোকান বাজার বন্ধ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এদিন খোলেনি।

শুক্রবার মামলটির শুনানি স্থগিতের আবেদন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে রাজ্য সরকার। তাদের যুক্তি, রাজ্যের পৌরসভা ও পঞ্চায়েত নির্বাচন আসন্ন।

এই অবস্থায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে। মামলা বাতিলের দাবিতে রবিবার রাজ্যে মিছিল বের করে ন্যাশন্যাল কন্ফারেন্স ও পিডিপি। ইতিমধ্যেই অনুচ্ছেদ ৩৫এ বাতিল হলে কী ক্ষতি হবে তা জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার শুরু করেছে স্বাধনিতাকামিরা।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


সর্বশেষ সংবাদ