বাংলা ফন্ট

হিজাব পরে মিস ইংল্যান্ড হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন মারিয়া

02-04-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 হিজাব পরে মিস ইংল্যান্ড হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন মারিয়া

ঢাকা: হিজাব পরেই মিস ইংল্যান্ড বা ইংল্যান্ডের সেরা সুন্দরী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন মারিয়া মাহমুদ। ২০ বছর বয়সী এই ইংরেজ ললনা ইতোমধ্যে মিস বার্মিংহাম প্রতিযোগিতায় রানার আপ এবং জাতীয় প্রতিযোগিতার সেমি ফাইনালের জন্য মনোনীত হয়েছেন।

তিনিই হবেন প্রথম হিজাবপরা ইংল্যান্ড সুন্দরী এবং সেই মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় ইংলান্ডের প্রতিনিধিত্বকারী। তার পূর্বে মিস ইংল্যান্ড প্রতিযোগিতায় মুসলিম নারীরা অংশগ্রহণ করলেও তিনি হলেন প্রথম হিজাবি নারী প্রতিযোগী। মারিয়া একজন সমাজকর্মী। তিনি বলেন, আমি চাই মুসলিমদের প্রতি যে নেতিবাচক ধারণা রয়েছে তা পরিবর্তন করতে এবং সাংস্কৃতিক সম্মিলনের প্রতিনিধিত্ব করতে। মারিয়া জানিয়েছেন, তিনি সুন্দরী প্রতিযোগিতার সাতার অংশে অংশগ্রহণ করবেন না।

নিজের হিজাব পরিধানের কারণ তুলে ধরে মারিয়া বলেন, আমি হিজাব পরি। কারণ এর মাধ্যমেই আপনি জানতে পারবেন আমি একজন মুসলিম নারী। অনেকে মনে করে আমি হিজাব পরেছি বলে আমি নিপীড়িত। কিন্তু আমি আমার চামড়া ঢেকে রাখলেই কি পরাধীন?

মারিয়াকে তার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের বিবরণও দেন। তার এক বন্ধু তাকে আবেদনের লিংক পাঠান। কিন্তু নিজের পোশাক ও উচ্চতার জন্য সংকোচবোধ করেন।

তবে আয়োজকগণ তাকে আশ্বস্ত করে বলেন, এখানে বিকিনি পরা বাধ্যতামূলক নয়। আমরা চাই সুন্দর পোশাক এবং সতেজ সৌন্দর্য্য। আমরা সুপার মডেল চাচ্ছি না। আয়োজকদের কথায় আশ্বস্ত হয়ে মারিয়া তাকে অংশগ্রহণ করে এবং বাছাইপর্বে ৩০ জনকে পেছনে ফেলে রানার-আপ হন।

মারিয়া বলেন, প্রথম দিন আমি খুব নার্ভাস ছিলাম। কেবল আমিই হিজাব পরা ছিলাম। কিন্তু বিচারকগণ আমার পার্ফরমেন্সে সন্তুষ্ট ছিলেন। তারা আমাকে সেরা ১০ মধ্যে রাখেন। তাদের মধ্যে আমি রানার-আপ হই এবং জাতীয় প্রতিযোগিতার সেমি-ফাইনালের জন্য মনোনীত হই।

মারিয়া এখন সেমি-ফাইনালের জন্য অপেক্ষা করছেন। যা আগামী জুলাই মাসে নিউইয়র্ক শহরে অনুষ্ঠিত হবে। সূত্র: ডেইলি মেইল, জিও টিভি

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল









সর্বশেষ সংবাদ