বাংলা ফন্ট

পতিতাপল্লীতে রোবট যৌনকর্মী!

03-08-2016

পতিতাপল্লীতে রোবট যৌনকর্মী!

‘রেড লাইট ডিস্ট্রিক্ট’ নামে খ্যাত আমস্টারডামের পতিতাপল্লীগুলো ২০৫০ সালের মধ্যে রোবট যৌনকর্মীতে ভরে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন ভবিষ্যতজ্ঞান চর্চাকারী ল্যান ইয়োম্যান এবং ওয়েলিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের সেক্সোলজিস্ট মিশেল মার্স।

পতিতাবৃত্তিতে নতুন অধ্যায় যোগ করবে সেক্স মেশিন।

নেদারল্যান্ডের রাজধানী আমস্টারডামের পতিতাপল্লীগুলোতে এসব সেক্স মেশিন অপরাধের মাত্রা কমাবে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম দ্য মিরর।

আমস্টারডামের অন্যতম সেরা পতিতাপল্লী ইয়াব-ইয়ামের নতুন করে সাজসজ্জার কারণে অনেকটা আন্দাজ করেই এ ধরণের মন্তব্য করেছেন বিশেষজ্ঞরা। ইয়াব-ইয়াম ২০০৮ সালে বন্ধ হয়ে যায়।

তবে গবেষণাপত্র অনুযায়ী, ইয়াব-ইয়াম অনেক আধুনিক এবং আরও সাজসজ্জা ও নতুন নতুন সব জিনিসে সাজিয়ে তোলা হবে। সব মিলিয়ে পতিতাপল্লীতে ঢুকতে প্রত্যেকজনের খরচ পড়বে ১০ হাজার মার্কিন ডলার।

ম্যাসাজ থেকে শুরু করে ল্যাপ ড্যান্সিং এবং যৌনমিলন সবখানেই অ্যান্ড্রয়েডের সরব উপস্থিতি থাকবে্। পতিতাপল্লীগুলোতে মানুষ পাচারের বিষয়টির কারণে ভবিষ্যত পতিতা ব্যবসায়ে রোবট আমূল পরিবর্তন আনবে। তাছাড়া এসটিআইয়ের মতো সমস্যা অর্থাৎ, এইচিআইভির মতো সর্বনাশা রোগ নির্মূল করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে গবেষকরা। গবেষকরা বলেন, ইয়াব-ইয়াম পতিতপল্লীতে ভিন্ন গড়ন, বয়স, ভাষা এবং লিঙ্গের রোবট থাকবে। তবে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়তা পাবে সোনালী চুলের রুশ অ্যান্ড্রয়েড ইরিনা। রোবটটি মধ্য-পূর্ববর্তী ব্যবসায়ীদের কাছে জনপ্রিয়।

গবেষণাপত্র অনুযায়ী, সব অ্যান্ড্রয়েডই ব্যাকটেরিয়া রেসিস্ট্যান্ট ফাইবার এবং মানুষের শরীরে বিদ্যমান তরল পদার্থ থাকবে। তবে এগুলো গ্রাহকদের শরীরে কোনো যৌন সংক্রামক রোগ সৃষ্টি করবে না বলেও গ্যারান্টি দিয়েছেন গবেষকরা।

সর্বশেষ সংবাদ