বাংলা ফন্ট

সরকারের বিশেষ নজরদারিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম

05-07-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 সরকারের বিশেষ নজরদারিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে কেউ যাতে বিতর্কিত পোস্ট, ভুয়া বা মিথ্যা তথ্য দিয়ে অথবা উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রচার করে সামাজিক অস্থিতিশীলতা তৈরি করতে না পারে সেজন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ বিভিন্ন ধরনের ব্লগ ও ওয়েবসাইট নজরদারীতে রাখার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এসব কাজ করতে প্রয়োজনীয় সাইবার সিকিউরিটি টুলসও কেনা হচ্ছে।

অনেকক্ষেত্রে দেখা যায়, টুইটারে ক্ষুদ্র-ব্লগ লিখে সরকারবিরোধী অপপ্রচার চালানো হয়। এছাড়া বিভিন্ন ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম চালানো হয়। এসব বন্ধ করতে নজরদারি করা হবে।

এ প্রসঙ্গে  ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, এটা নির্বাচনের বছর। আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জের সময়। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, অপপ্রচার যাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়াতে না পারে সে জন্য আমরা কাজ করবো। এবার এই ধরনের উদ্যোগ নিতেই হতো। কারণ অনলাইন দুনিয়াকে খারাপভাবে ব্যবহারের নজির রয়েছে। আমরা সেই ঝুঁকি নিতে চাই না।

তিনি বলেন, সাইবার নিরাপত্তার জন্য আমরা কিছু সিকিউরিটি টুলস সংগ্রহ করছি। এগুলো দিয়ে ইউটিউব, টুইটারসহ আরও যা কিছু আছে তা মনিটর করা হবে। কেউ যাতে এসব মাধ্যম দিয়ে অনিষ্ট করতে না পারে তা চিহ্নিত করতে সাহায্য করবে এই টুলস। অনলাইনে মাঝে মাঝে উসকানিমূলক কিছু তথ্য ছড়ানো হয়, ব্লগ লেখা হয়। এবার সাইবার সিকিউরিটি টুলস দিয়ে এসব নজরদারি করা হবে।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল



সর্বশেষ সংবাদ