বাংলা ফন্ট

ওবায়েদ আকাশ-এর কবিতা

24-06-2017

ওবায়েদ আকাশ-এর কবিতা
সৌন্দর্য জিজ্ঞাসায়

সারা মাসের ভুঁড়িটাকে ঘুরিয়ে এনে
একটা চারকোণা চাকরির ওপর বসিয়ে দিলে
একটি স্বাবলম্বী বিষাদের মুখ
পৃথিবীময় সৌন্দর্য জিজ্ঞাসায়
                  বারবার পরাজিত হয়

একবার এক মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার
দাম্ভিক খদ্দের এসে বলল
তিনি যা আগে থেকেই শিরা-উপশিরায় মানিয়ে নিয়েছেন
নিবস্ত্র সামুদ্রিক বালুকাবেলায় অপরূপা প্রতিযোগিদের
সম্ভাব্য পরিণতিতে তেমন কিছুই ঘটে উঠবে হয়তো

সারাদিনের যৌনাঙ্গের ভেতর যে বিভ্রান্ত ও অকার্যকর
শুক্রাণুগণ এখন পঁচাগলা নদী বা যে কোনো আঁস্তাকুড়ে
ভেসে যাবার অপেক্ষায়, তারা কেউ কেউ সাংসারিক
বিশ্বস্ততার দোহাই দিয়ে প্রতিযোগিতার অপ্সরাকুলে
পরিচর্যারত। কেননা অবগাহন মাত্রই সান্ধ্যপল্লীর নিভৃত ছায়ায়
ফুরফুরে তালের শাস্ খেয়ে বাড়ি ফেরা নয়, এই তথ্য
একদা কাঁধে ঝোলানো দীর্ঘশ্বাস থেকে
মাসান্তে পাওয়া চাকরির চেক ঘষতে ঘষতে বলেছিল কেউ

এ-কালের ভূমধ্য গোটানো লেজের ওপর একবার মাত্র
বৃষ্টি হলে পানান্তের উচ্ছ্বাসের মতো বেরিয়ে আসে সব

অনাহারি মায়ের জমানো মুদ্রায় কেনা সর্বোচ্চ জ্ঞান ও
গাঢ় বেদনার দাসত্বের কোট-টাই পরে ঘামছে নগর

সাত সমুদ্র পেরিয়ে শীতার্ত নির্জনতার ঝকঝকে দাঁতে
ঝোলানো বিশ্বময় সাদা হাড় ও নির্লোম মুখের
সৌন্দর্য জিজ্ঞাসায় তোমার অবাধ্য ভ্রমণ-
একবার কৃষ্ণ সাগরে একবার আরব্য মরূপ্রান্তরে
মুখ থুবড়ে পড়ে যাবার দৃশ্যে ব্যাকুল হয়েছে কেউ কেউ