বাংলা ফন্ট

সাহিত্যে নোবেল পেলেন ব্রিটিশ লেখক কাজুও ইশিগুরো

05-10-2017
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

  সাহিত্যে নোবেল পেলেন ব্রিটিশ লেখক কাজুও ইশিগুরো
স্টকহোম: ২০১৭ সালের সাহিত্যে নোবেল জয় করলেন ব্রিটিশ লেখক কাজুও ইশিগুরো। নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে তাকে একজন বিশিষ্ট ব্রিটিশ লেখক হিসেবে পরিচয় করিয়ে ব্যাপক প্রশংসা করে বলা হয়েছে, ‘এই লেখক নিজের আদর্শ ঠিক রেখে, আবেগপ্রবণ শক্তি দিয়ে বিশ্বের সঙ্গে আমাদের সংযোগ ঘটিয়েছেন।’

এই পর্যন্ত তিনি মোট আটটি বই লিখেছেন, আর এই আটটি বই মোট চল্লিশটি ভাষায় অনূদিত হয়েছে। কাজুও ইশিগুরোর উপন্যাসগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো ‘দ্য রিমেইন্স অব দ্য ডে’ এবং ‘নেভার লেট মি গো।’ এ দুটো উপন্যাস অবলম্বনে চলচ্চিত্রও তৈরি করা হয়েছে।

বিজয়ী কাজুও ইশিগুরোকে ৯০ লাখ সুইডিস ক্রোনার মূল্যমানের পুরস্কার প্রধান করা হবে। বাংলাদেশি মুদ্রার এই পুরস্কারের মূল্য দাঁড়ায় ৯০ কোটি টাকা। প্রতি বছর কাকে এই পুরস্কার দেয়া হবে তা সুইডিশ একাডেমি ঠিক করে এবং অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই নির্বাচিতের নাম ঘোষণা করে।

সুইডেনের বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেলের ইচ্ছানুসারে নতুন কোনো কিছু উদ্ভাবন, বিশেষ গবেষণা এবং মানব জাতির কল্যাণে অসামান্য অবদান রাখার জন্য প্রতি বছর নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়। পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসা, সাহিত্য, শান্তি ও অর্থনীতিতে দেয়া হয় এ পুরস্কার।

সাহিত্যে নোবেল প্রদানের বিষয়ে আলফ্রেড নোবেলের কিছু নির্দিষ্ট বিষয় উল্লেখ ছিল। সে বিষয় অনুযায়ী এখনও সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়। নোবেলের উইল অনুসারে জানা যায়, তিনি বলে গেছেন, ‘তাদেরকেই সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হবে যারা একটি আদর্শগত প্রবণতার মাধ্যমে কোন অনন্য সাধারণ কাজ প্রদর্শন করতে পারবেন।’

গত বছর সাহিত্যে নোবেল পান বিখ্যাত গীতিকার ও গায়ক বব ডিলান। তাকে নোবেল পদক দেয়ার ঘোষণা দেয়া হলেও তিনি তা গ্রহণ করবেন কি না, এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। ফলে অনেকেই মনে করেছিলেন, তিনি নোবেল পদক প্রত্যাখ্যান করেছেন। কিন্তু তিনি এ বিষয়ে দীর্ঘদিন মৌনতা অবলম্বন করে অবশেষে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে পুরস্কার গ্রহণে সম্মত হন। বব ডিলানকে নোবেল দেওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়, তিনি মার্কিন গানের ঐতিহ্যের সাথে নতুন কাব্যিক মাত্রা যোগ করেছেন।

আগে থেকেই চলতি বছরের সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রদানের ঘোষণাকে কেন্দ্র করে পুরস্কারকেন্দ্রিক বেশ কিছু বিতর্কও চলছে। ১৯০১ সালে প্রথম এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। তখন থেকে আজ পর্যন্ত যেসব বিষয় নিয়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ সম্মানসূচক এই পুরস্কার বিতর্কিত হয়েছে-তা উল্লেখ করার মতো ঘটনা।

নোবেল পুরস্কার জয়ীদের অনেকে নোবেল একাডেমির সদস্য হওয়ায় এই পুরস্কারের যথার্থতা নিয়ে অনেকের মনে প্রশ্নের উদ্রেক হয়। এরা হলেন সুইডেনের স্বল্প পরিচিত দুইজন লেখক আইভিন্ড জনসন ও হ্যারি ম্যাটিনসন। এরা যুগ্মভাবে এই পুরস্কারের অধিকারী হন। এরপর বিগত কুড়ি বছরে দুইজন নোবেল পদক বিজয়ীকে ঘিরে মতপার্থক্যের সৃষ্টি হয়। এদের একজন ইতালির নাট্য রচয়িতা ও অভিনেতা দারিও ফো।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইচএমএল




সর্বশেষ সংবাদ