বাংলা ফন্ট

জিললুর রহমানের কবিতা

14-06-2018

 জিললুর রহমানের কবিতা

প্যাটেলার গান
 
সেবার প্যাটেলাটুকু গুড়িগুড়ি হলে
অবসাদে বসে পড়ে হাঁটুর লাটিম
চারিদিকে মানুষের ত্রস্ত চলাফেরা
ভেতরের হাহাকারে এস্রাজের সুর
স্থির, কি নিষ্কম্প তার তারের ব্যঞ্জনা
সমস্ত শরীর জুড়ে প্যাটেলার গান
অর্কেস্ট্রার আর্তনাদ হু হু বেজে চলে
 
দুমড়ে মুচড়ে জগদ্দল প্যাটেলার হাঁটু
সমস্ত শরীর স্থানু হঠাৎ অথর্ব
তীক্ষè টোপ মহাজাগতিক শিকারের-
কতো দ্রুতযান শত শব্দদোষ শুধু
আমাদের চারিপাশে ক্রমশ বিস্তারে
ক্রমশ সময় স্রোত টেনে যায় ভূত-
ভবিষ্যতে- কোষে কোষে তীব্রতর হয়
তীব্র ঘ্রাণ তীব্র তার ব্যগ্র মাদকতা
টোপের হরিণ আজ জনারণ্যে ভীড়ে
মিশে যায় শিকারীর শীতল দৃষ্টিতে
অথবা এমন কোন রক্তস্রোত ধারা
প্রবাহিত শিহরণ ঘর্ম কলেবরে
সমস্ত শরীর জুড়ে প্যাটেলার গান
অর্কেস্ট্রার আর্তনাদ হু হু বেজে চলে
 
তোমাদের দাঁড়াবার সে-সময় নেই
তোমাদের সামনে শুধু ঝুলে থাকে
অসমাপ্য কর্তব্যের লোভাতুর ঝুলি
চোখে ঠুলি পড়ে থাকে অগ্রগামিতার
সোপান পেরিয়ে চলে মানব জীবন
কেবল আমিই তবে স্রোতের বিপক্ষে
বেমক্কা পড়েছি বসে পথে- মাঝপথে
নিষ্পলক দৃষ্টিরেখা দূরে স্থিরমণি
হাঁটুভাঙা চলৎশক্তি নিতান্ত রহিত
কেবল ভেতরে গুঞ্জে মর্ম বিদারক
বিষণ্ন এস্রাজ- সাজ সাজ রব ওঠে
কোথায় চলেছে ছুটে কর্তব্যের গাড়ি
কোন সে স্টেশনে তার থামার ঠিকানা
বিসমিল্লা খাঁর সানাই হঠাৎ ফুকারে
উথাল পাথাল করে সারা দেহমন
সমস্ত শরীর জুড়ে প্যাটেলার গান
অর্কেস্ট্রার আর্তনাদ হু হু বেজে চলে
 
বসন্ত উধাও ধু ধু- ফের শীতকাল
ফিরে আসে জীবনের সবুজ চত্বরে
তবে সে মীড়ের সাথে সারা পৃথিবীতে
স্রোতের বিপক্ষে থাকা অনড় হাঁটুতে
জীবনের নতুন ব্যঞ্জনা জমে ওঠে
অনন্তর ছোটা ছেড়ে দক্ষিণের দ্বারে
হৃৎ-ক্ষরণের গান আলোর উচ্ছ্বাসে
সমস্ত শরীর জুড়ে প্যাটেলার গান
অর্কেস্ট্রার আর্তনাদ হু হু বেজে চলে
 
(১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮)

সর্বশেষ সংবাদ